কিভাবে একটি ওয়েবসাইট আপনার সেরা মার্কেটিং হাতিয়ার হতে পারে?

গত দুই দশক ধরে প্রযুক্তির অগ্রগতি আমাদের দৈনন্দিন জীবনের যোগাযোগ, চলাফেরা এবং কেনাকাটাতে এক নতুন মাত্রা যোগ করছে। ইন্টারনেট ব্যবহারের দ্রুত বিস্তার ব্যবসায়ীক ক্ষেত্রে গ্রাহকদের কাছে দ্রুত পৌঁছানো এবং তাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য এক অনন্য সুযোগ সৃষ্টি করেছে। সেই সাথে, বর্তমান সময়ে  গ্রাহকরা কিনাকাটা করার জন্য ওয়েবসাইটকে একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে গ্রহণ করেছে।

তাই আপনার ওয়েবসাইটটি সম্ভাব্য গ্রাহকদের জন্য অন্যান্য মার্কেটিং হাতিয়ার গুলোর মধ্যে সেরা হাতিয়ার হয়ে উঠতে পারে।

কেন একটি ওয়েবসাইট আপনার ব্যবাসায়ের মার্কেটিং হাতিয়ার গুলোর মধ্যে সেরা?

১. স্বল্প মূল্য

আপনি কি কখনো প্রিন্ট মিডিয়া, রেডিও, টেলিভিশন কিংবা অন্য কোন মাধ্যমে আপনার ব্যবসায়ের প্রচার করেছেন? যদি করে থাকেন তাহলে জানবেন এটি কতটা ব্যয়বহুল! কিন্তু ব্যবসায়ের জন্য বিজ্ঞাপনে বিনিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ, আর এই বিজ্ঞাপনে অনেক টাকা ব্যয় করতে হয়। কিন্তু, আপনার যদি একটি ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আপনি সেই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুবই কম খরচে কোম্পানির বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারেন।

২. বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন এবং বিপণনের ক্ষেত্রে একটি ওয়েবসাইট খুবই বন্ধুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনি আপনার ওয়াবসাইটে সকল পণ্য এবং সেবার বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে দিতে পারেন, যা বিজ্ঞাপনের অন্যান্য মাধ্যম গুলোতে করা সম্ভব হয় না। এছাড়াও বিজ্ঞাপন দেওয়ার আরো অনেক উপায় আছে। তার মধ্যে একটি হলো ফেইসবুক বিজ্ঞাপন, এর মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের পণ্য গ্রাহকদের কাছে খুব দ্রুত তুলে ধরতে পারবেন। আর একটি হচ্ছে ইন্টারনেট মার্কেটিং। এটি আপনার ব্যবসায়ের জন্য একটি প্রধান সুবিধা। একটি ভালো ইন্টারনেট মার্কেটিং সেবা প্রদানকারী কোম্পানি আপনার ওয়েবসাইটের র‍্যাংকিং দ্রুত বৃদ্ধি করতে পারে, যার ফলে আপনার বিক্রয় খুব দ্রুত বৃদ্ধি পায় এবং আপনিও প্রচুর মুনাফা লাভ করেন।

৩. গ্রহণযোগ্যতা

একটি ওয়েবসাইট আপনার ব্যবসায়ের পরিচালনা কার্যক্রম এবং গ্রাহকদের সেবা প্রদান কার্যক্রম আরো সহজ করে তুলে। তাই, আপনার ওয়েবসাইটটির গঠন আরো সহজতর করে তুলুন যাতে গ্রাহকরা আপনার থেকেই পণ্য ক্রয় করে। তখন বেশিরভাগ মানুষ দোকানে এসে পণ্য ক্রয় করার পরিবর্তে ঘরে বসেই আপনার ওয়েবসাইটে ঢুকে পণ্য ক্রয় করেত বেশি আগ্রহী হবে। গ্রাহকের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে, পণ্য সম্পর্কে সকল তথ্য যদি আপনি আপনার ওয়েবসাইটে দিয়ে দেন তখন গ্রাহকদের কোনো পণ্য সম্পর্কে আর কোনো দ্বিধা থাকে না এবং কোনো কিছু বার বার আর জিজ্ঞাসা করা লাগে না। তখন তারা আপনার অনলাইন সাইটটিতে তাদের পণ্য খুব সহজেই খুঁজে নিতে পারবে।

৪. গ্রাহক বৃদ্ধি

বেশিরভাগ ব্যবসায় স্থানীয়ভাবে জনপ্রিয়, কিন্তু শহরের বাহিরে যেসব সম্ভাব্য গ্রাহক আছে তাদের কি হবে? এক্ষেত্রে একটি ওয়েবসাইট আপনাকে আপনার শহরের বাহিরেও আরো অনেক গ্রাহক পেতে সহায়তা করে। এবং শুধু আপনার শহরের বাহিরে নয়, ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি সারা বিশ্বব্যাপী ব্যবসায় করতে পারবেন। শুধুমাত্র একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই আপনার ব্যবসায় পুরো বিশ্বে পরিচিতি পাবে।

৫. ২৪/৭ গ্রাহক সেবা

প্রায় সময় দোকান বন্ধের সময়ে কোনো গ্রাহক আসলে তাকে ফিরিয়ে দেওয়ার অভিজ্ঞতা কম বেশি সকল ব্যবসায়ীর  আছে। কিন্তু আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের দরজা কখনোই বন্ধ করতে হবে না। কারণ, একটি অনলাইন ওয়েবসাইট রাতে বা দিনের যেকোন সময় যেকোন মুহূর্তে ব্যবহার করা যেতে পারে। তখন গ্রাহক আপনার দোকানে আসার পরিবর্তে আপনার সাইটটিতেই বেশি দেখবে কারণ এখানে ২৪/৭ সকল পণ্য পাওয়া যায় এবং ক্রয় করা যায়। তাই, শুধুমাত্র ওয়েবসাইটটিতে আপনার পণ্য ও সেবা সম্পর্কে যথেষ্ট পরিমাণ তথ্য দিতে ভুলবেন না।

এখন আপনি অনেকটাই বুঝতে পেরেছেন যে কিভাবে আপনার ওয়েবসাইটটি একটি সেরা মার্কেটিং হাতিয়ার হতে পারে। এটি আপনার প্রধান মার্কেটিং হাতিয়ার! কারন, প্রতিদিন এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলি সম্পন্ন করে। এটি আপনার সঠিক দলনেতা। আপনার সেরা বিক্রয়কারী। এমনকি, একটি ওয়েবসাইট মাত্র একদিনে এত কাজ সম্পন্ন করতে পারে যা একজন বিক্রয় কর্মীর পক্ষে অসম্ভব। তাই আপনার ওয়েবসাইটে বিনিয়োগ করা মানে আপনার ব্যবসায়ের অবকাঠামোতে বিনিয়োগ করা। এটি খুবই প্রয়োজনীয় একটি ব্যয়, কারন বর্তমান সময়ে আপনার ব্যবসায়ের বৃদ্ধি এবং টিকে থাকার জন্য ওয়েবসাইট অনেক গুরুত্বপূর্ণ।